৩১৩ আজীবন সদস্য

تعاونوا على البر والتقوى
তোমরা তাকওয়া ও নেক কাজে একে অপরকে সহযোগিতা কর-আল কুরআন

মহমিান্বিত
তিন’শ তের

বরকতময় তিনশ’ তের জন

  • হিদায়েতের দিশারী লক্ষাধিক পয়গাম্বরদের মধ্যে রাসূলদের সংখ্যা তিনশ’ তের।
  • আল্লাহর খলীল ইবরাহীমের (আ) সাথী ছিল তিন’শ তের।
  • ঐশী ঘোষিত বাদশাহ তালূতের বিজয় অভিযানে যোগদানকারী মুজাহিদদের সংখ্যা ছিল তিন’শ তের।
  • পৃথিবীর বিদায়লগ্নে দ্বীনে েইসলামের বিজয় পতাকা শেষবারের মত উড্ডীনকারী ইমাম মাহদী (আ) এর মূল বাহিনীর সংখ্যা হবে তিন’শ তের।
  • ঐতিহাসিক আসহাবে বদরিয়্যীনদের সংখ্যা ছিল তিন’শ তের।
  • ঐতিহাসিক তিন’শতের সংখ্যার অনুপাতে জামিআ আরাবিয়া আশরাফুল উলূম-এর আজীবন সদস্য সংখ্যা তিন’শ তেরকে নির্ধারণ করা হয়েছে।

আমাদের প্রত্যাশা, জামিআর হিতাকাংখী ভাইয়ের মহান আল্লাহ তাআলার সন্তুষ্টি ও রেযামন্দী লাভের উদ্দেশে্য এই বরকতপূর্ণ কাফেলায় শামিল হওয়ার ব্যাপারে সানন্দে ও আগ্রহ চিত্তে এগিয়ে আসবেন। পরম প্রিয়তম রাব্বুল আলামীনের দরবারে আশা করা যায় এর বিনিময়ে তিনি তার করুণার ভাণ্ডার খুলে দেবেন ও আপনাদেরকে জান্নাতুল ফিরদাউস দান করবেন।

পবিত্র কুরআনের একাদশ পারার সূরায়ে তাওবার ১১১ নং আয়াতে মহান আল্লাহ তাআলা ইরশাদ করেন,

ان الله الشترى من المؤمنين انفسهم واموالهم بان لهم الجنة

অর্থ: নিশ্চয় আল্লাহ তাআলা জান্নাতের বিনিময়ে মুমিনদের থেকে তাদের জান ও মাল খরীদ করে নিয়েছেন।

Share